৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, রাত ৩:১৯
নোটিশ :
Wellcome to our website...

ধারাবাহিক- উপন্যাস !!প্রকৃতির প্রেম!!

রিপোর্টার
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১৯ পূর্বাহ্ন

সুইটি বণিক।।

প্রকৃতির মাঝেই পুরুষের মন

শিশুর মত অবুঝ হয়!    

=২=

মানুষ চাইলে ভাল ও মন্দ দুটোই পারে।

পৃথিবীতে ভালবাসাই সব চাইতে বড় আত্মসম্পদ!

ভালবাসা হীন পাপের রাজ্যে সকলি অনাসৃষ্টি, ধ্বংস – যজ্ঞ আর —!

আর  কি পলাশ?

মহোদয় আমি জানি না আর  যেন কি?

আর  ভালবাসা হীন পথ বড় দীর্ঘ!

মহোদয় আপনি ঠিক বলেছেন!

মনের বিপরীতে চলার নাম মন্দ বাসা!

আমি যদি হারিয়ে যাই, তুমি পথ খুঁজে নিও পলাশ।

বলেছি না, আমি-

আপনি ছাড়া শূন্য আমার  মন মরুভূমি!

মহোদয় আত্মসমৃদ্ধ যে ভালবাসা তা হৃদয় থেকে কখনো হারিয়ে যায় না! সুগন্ধি ফুলের মতো গন্ধ  ছড়ায় মন অন্তরালে সময় যত ঘনিয়ে আসে মৃত্যুর দিকে সে ভালবাসা অমর হয় আমৃত্যু পথে!

ভালবাসাই চির অমর এই বিশ্ব ভূমণ্ডলে! চির পবিত্র এই ত্রি-ভুবনে! যর উপলব্ধি জাত ক্ষমতা সকলে হয় না এ জগৎ সংসারে!

আমার আপন ঘরে আপনি চির-অসীম!

যেখানে যাই, আমার সমস্ত মন জুড়ে সেই মহোদয়!  আমি তার সব জানি, ভাল ও মন্দ!  কিন্ত সে  কিছুই জানে না আমার সম্পর্কে!

বছর  ছয় আগে একটা চিঠিতে সমস্তই লিখেছিলাম, কিন্তু তখন তার পরবার সময় পর্যন্ত ছিল না। কোন এক দাম্ভিকতা  ছিল তার সমস্ত মন জুরে!  গায়ে জোরে সব জয় করা যায় না, তখন সে জানতেন না! এখন তার মনের বড়ো জোর হইছে আর সেই জোরের ধৈর্যের গুনে আমি পরাজিত!  মহোদয় আপনি অনেক বড়, তাই আপনার দুঃখ টাও অনেক বড় আজ, আমি বুঝি!

আমি যে বুঝি তা আপনি জানেন না।

অবুঝ বলিয়া কাঁদায় সবাই, বুঝি বলিয়াই যে কাঁদি,আর এটাই কেউ বুঝে না!

তবে মনের গোপনে প্রশ্ন থেকে যায় কে বোঝে আর কে বোঝে না!  কিন্তু আপনি আমি নির্বাক, বুঝি কিন্তু প্রকাশিত না যার যার মতন করে!

বোবা আর  অবুঝ থাকতে ভাললাগে  মহোদয় আপনার কাছে।

আপনার স্নেহ আর  ভালবাসা, সে এক স্বর্গের অনুভূতি, সেখানে কোন তর্ক চলে না, সেখানে নির্বার থাকাই প্রাপ্তি, ও  নীরব জীবন- দর্শন মেলে।

মহোদয় সময় ও পরিস্থিতি যাই হোক – আমার আকাঙ্ক্ষা, আপনার প্রাপ্তি চলেন চুপই থাকি! 

মনে মনে কত কথা বলি, তার হৃদয় পর্যন্ত এত কিছু যায় না জানি, তাই একলাই হাসি।

আমরা দুজনই  সময়কে ভালবাসি!

শুধু এটুকুই বুঝি। আর কিছুই বুঝি না,বলে আমার subconscious mind !

ওরে আমার অবচেতন মন তুই বড় ধৈর্য শীল এখন, আর  শান্ত! আসলে প্রাপ্তিতে মনের অবসাদ ও ক্লান্তি দূর হয়! আর মন বয়ে চলে তার নিরব গন্তব্যে! 

এই বয়ে চলার নামই গতি  বা সময়! 

সময়ই ঈশ্বর, সময়ই অধীশ্বর!

সময়কে যে ধারণ করতে পারে, কর্মে- মর্মে,

সেই অপেক্ষায়, ধৈর্যে- সহ্যে ;

তারি প্রাপ্তি মেলে আপন আপন  মনস্কামনা ও জীবনদর্শনে!  (সুইটি বণিক, লেখক ও গবেষক এবং শিক্ষক)


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর